"> ইসরাইলে প্রবেশ করলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে : মোমেন ইসরাইলে প্রবেশ করলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে : মোমেন – News vision
  1. admin@newsvision.us : admin :
  2. info@newsvision.us : newsvision :
রবিবার, ১৩ জুন ২০২১, ০২:০৩ অপরাহ্ন

ইসরাইলে প্রবেশ করলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে : মোমেন

নিউজ ভিশন ডেস্ক ::
  • পোষ্ট করেছে : বুধবার, ২৬ মে, ২০২১
  • ১৬ জন দেখেছেন

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন আজ বলেছেন, বাংলাদেশ ইসলাইলকে স্বীকৃতি দেয়নি। তাই, কোন বাংলাদেশী ইসরাইলে প্রবেশ করতে পারবে না।

তিনি আরো বলেন, ‘যদি কেউ (কোন বাংলাদেশী নাগরিক) সরকারের অনুমোতি ছাড়া ইসরাইলে যায়, তবে, তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

আজ রাজধানীতে রাষ্ট্রীয় অতিথিশালা পদ্মায় বাংলাদেশে নিযুক্ত ফিলিস্তিনের রাষ্ট্রদূত ইউসুফ এস ওয়াই রামাদানের কাছে ফিলিস্তিনের জনগণের জন্য ফার্মাসিউটিক্যাল দ্রব্য ও সরঞ্জামাদি হস্তান্তরকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কথা বলেন।
তিনি আরো বলেন, ‘সরকার কাউকে ইসরাইল ভ্রমণের অনুমোদন দেয়নি। আমরা আইনগতভাবে এ ব্যাপারে খুবই দৃঢ় অবস্থানে রয়েছি। আর সবাই তা জানে।

মোমেন বলেন, এক্ষেত্রে আইন প্রয়োগ করা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব। ‘আমাদের ইমিগ্রেশন বিভাগ তাৎক্ষণিক তাদেরকে আটকে দেবে। ইমিগ্রেশন এই সব দিকগুলো নিয়ন্ত্রণ করবে।’

পাসপোর্টের আন্তর্জাতিক মান বজায় রাখতে নতুন ইস্যুকৃত বাংলাদেশী পাসপোর্টে ‘ইসরাইল ছাড়া বিশ্বের যে কোন দেশে ভ্রমণ করা যাবে’ কথাটি তুলে দেয়ার ফলে এ বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়।

চলতি বছরের মে মাসের আগ পর্যন্ত ইস্যুকৃত বাংলাদেশী পাসপোর্টে ‘ইসরাইল ছাড়া বিশ্বের সকল দেশে এই পাসপোর্টে ভ্রমণ বৈধ’ কথাটি লেখা ছিল। কিন্তু নতুন ই-পাসপোর্টে ‘বিশ্বের সকল দেশে এই পাসপোর্টে ভ্রমণ বৈধ’ লেখা রয়েছে।
ড. মোমেন বাংলাদেশী পাসপোর্টে ইসরায়েল প্রসঙ্গ বাদ দেয়ার কারণ ব্যাখ্যা করে বলেন, ‘আমরা কয়েক মাস আগে আমাদের পাসপোর্ট বৈশ্বিক মান অনুযায়ী করেছি। কিন্তু আমরা আমাদের অবস্থান থেকে বিচ্যূত হইনি। যতদিন পর্যন্ত সত্যিকারের স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা না হবে, ততদিন পর্যন্ত আমরা ইসরাইলকে স্বীকৃতি দিব না।’
এ ব্যাপারে তিনি বলেন, পাসপোর্ট একটি দেশের নাগরিকদের পরিচয় বহন করে। কোন দেশের পররাষ্ট্র নীতির সঙ্গে পাসপোর্টের কোন সম্পর্ক নেই।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরো বলেন, ইসরাইলের প্রতি আমাদের অবস্থানের কোন ধরনের পরিবর্তন হয়নি। বঙ্গবন্ধুর সময়ে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র-নীতি যেমন ছিল, এখনই তেমনই আছে।’ তিনি পুনরুল্লেখ করেন, ‘আমরা ইসরাইলকে স্বীকৃতি দেইনি।’ বাংলাদেশ ৪০ লাখ টাকা মূল্যের ওষুধ ও চিকিৎসা সরঞ্জামাদি ফিলিস্তিনের কাছে হস্তান্তর করে।
পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

বিগত আট দশক ধরে ইসরাইল-ফিলিস্তিন সংঘাতে বাংলাদেশ ফিলিস্তিনীদের প্রতি দৃঢ় সমর্থন দিয়ে আসছে। বাংলাদেশ কখনোই ইসরাইলকে স্বীকৃতি দেয়নি। একটি স্বাধীন দেশ হিসেবে ঢাকায় ফিলিস্তিনের দূতাবাস স্থাপনের অনুমোদন দিয়েছে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ অতি-সম্প্রতি গাজায় মুসলিমদের পবিত্র আল-আকসা মসজিদ প্রাঙ্গণে ফিলিস্তিনী জনগণের প্রতি দখলদার বাহিনীর বর্বরোচিত হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে।

সম্প্রতি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানায়-‘বাংলাদেশ জাতিসংঘের প্রস্তাবের আলোকে- পূর্ব জেরুজালেমকে রাজধানী করে ১৯৬৭ সালের আগের সীমানা অনুযায়ী একটি স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্র গঠনের মাধ্যমে ফিলিস্তিন-ইসরাইল সংঘাত নিরসনে দ্বি-রাষ্ট্র নীতির পক্ষে দৃঢ়ভাবে অবস্থান নিয়েছে।’

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2020 News Vision LTD It's a TM Registered News Organization
Design & Development Freelancer Zone